Monday , September 16 2019
Download Free FREE High-quality Joomla! Designs • Premium Joomla 3 Templates BIGtheme.net
Home / আন্তর্জাতিক / মুসলিম সন্দেহে গণপিটুনিতে ঠাকুরকে মেরে ফেললেন হিন্দুরা

মুসলিম সন্দেহে গণপিটুনিতে ঠাকুরকে মেরে ফেললেন হিন্দুরা

বিশ্বব্যাপী মুসলিমদের ওপর চলছে নির্যাতন ও গণপিটুনি। এর পরিণতিতে ঘটছে হত্যার মতো জঘন্য ঘটনাও। এবার ভারতের রাজধানী দিল্লিতে গণপিটুনির শিকার হলেন এক যুবক ঠাকুর। সাহিল সিং নামে ২৩ বছরের এক যুবক ঠাকুরকে মুসলিম সন্দেহে গণপিটুনি দিয়ে হত্যা করা হয়।

দিল্লির মৌজপুর অঞ্চলের পণ্ডিতদের জন্য নির্ধারিত রাস্তায় ২৩ বছরের এ যুবক সাহিল সিংকে হাঁটতে দেখে পণ্ডিতরা। তারা তাকে মুসলিম ভেবে বেধড়ক মারধর করে। ফলে পণ্ডিতদের গণপিটুনিতে মারা যায় সাহিল সিং।

সাহিল সিংয়ের মা সংগীতা সিং নিউজ পোর্টাল বাইন্ড হেডলাইনকে জানান, পণ্ডিতরা মুসলমান ভেবে আমার ছেলে হত্যা করেছে। সে আমাদের সংসার চালাত। সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিই ছিল সে। কারণ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তার বাবা অসুস্থ, শয্যাশয়ী।

ঠাকুর পণ্ডিতরা তাদের ব্যবহৃত রাস্তায় সাহিলকে হত্যার পর এভেবে খুশি হয়েছিল যে, আমরা একজন মুসলিমকে হত্যা করতে পেরেছি। যখন তারা জানতে পারে যে, সাহিল সিং মুসলিম নয়, তাদেরই এক অসুস্থ ঠাকুরের ছেলে, তখন তারা হতভম্ব হয়ে যায়। আর বলে খুব বড় ভুল ঘটনা ঘটেছে।

গণপিটুনির সময় সাহিল তাদের কাছে বাঁচার আকুতি করে। কিন্তু কেউ তার কথা শোনেনি। গণপিটুনির পর সাহিলের পরিবার খবর পেয়ে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যায়। হাসপাতালে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করে।

Facebook Comments

Check Also

যে গ্রামে মুসলমানদের অনুপস্থিতিতে মসজিদ দেখাশোনা করে হিন্দুরা

এলাকায় নানান কারণে কমছে মুসলিমদের সংখ্যা। এর জন্য মসজিদের খেদমতে সব সময় মুসলিমরা সময় দিতে …